মোহাম্মদ আশরাফুলের জার্নি চলছেই। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের প্লেয়ার্স ড্রাফটে নাম তুলতে বিপ টেস্টে দেখিয়েছেন চমক; ড্রাফটে দল পেয়েছেন মিনিস্টার রাজশাহীকে।

ফিটনেস, স্কিল ঠিক রেখে আবোরো পারফরমেন্সে আলো কাড়ার টার্গেট রেকর্ডবয় আশরাফুলের। করোনাকালেও ক্যারিয়ারের একেবারের শুরুর দিকের কোচ সারোয়ার ইমরানের তত্বাবধানে চালিয়ে গেছেন অনুশীলন।

৩৬ বছর বয়সেও হাল ছাড়েননি। সংগ্রাম চালিয়েই যাচ্ছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

করোনাতে খেলা বন্ধ থাকলেও নিজেকে গুটিয়ে রাখেননি ফিটনেস-স্কিল ঠিক রাখতে জিম আর বিভিন্ন মাঠ ঘুরে ঘুরে করছেন অনুশীলন। যার ফল হিসেবে সুযোগ হয়েছে বঙ্গবন্ধু টি টোয়েন্টি কাপের দল মিনিস্টার রাজশাহীতে।

টুর্নামেন্টের মোস্ট সিনিয়র ক্রিকেটার সাথে দলের প্রত্যাশা। মাঠের খেলায় পারফর্ম করার চ্যালেঞ্জ থাকবেই। তবে সেসব নিয়ে ভাবছেন না আশরাফুল। দীর্ঘ বিরতির পর খেলায় ফিরতে যাচ্ছেন দ্রুত মানিয়ে নিয়ে সার্ভিস দিতে চান দলকে।

কোভিডকালে টুর্নামেন্ট। ক্রিকেটারদের সুরক্ষায় এখনই শুরু হচ্ছে না দলীয় অনুশীলন। ১৯ নভেম্বর করোনা পরীক্ষার পর তবেই হোটেলে উঠবে দল। এক সাথে অনুশীলনের সুযোগ হবে মোটে তিন দিন। টিমে বড় কোন তারকা না থাকলেও টুর্নামেন্টে কম্পিটেশন করবে রাজশাহী, সাথে আরও একবার নিজেকে প্রমাণ করতে পারবেন আশাবাদী আশরাফুল।