প্রতারণার মাধ্যমে সৌদি প্রবাসী সাবেক স্বামীর কাছ থেকে কোটি টাকারও বেশি অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার মডেল ও অভিনেত্রী রোমানা ইসলাম স্বর্ণাকে একদিনের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

শুক্রবার মডেল স্বর্ণাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ তাকে পাঁচদিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে। 

অন্যদিকে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম মাহমুদা আক্তার রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে মডেল স্বর্ণাকে একদিনের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন।

সাবেক স্বামীর কাছ থেকে কোটি টাকারও বেশি আত্মসাৎ করার অভিযোগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর লালমাটিয়া এলাকা থেকে স্বর্ণাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

স্বর্ণা ছাড়াও তার মা আশরাফুল ইসলাম শেইলি (৬০) ও ছেলে আন্নাফিকে (২০) গ্রেফতার করা হয় বলে বৃহস্পতিবার রাতে সংবাদ সম্মেলন করে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) হারুন-অর রশিদ।

ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) মৃত্যুঞ্জয় দে সজল গণমাধ্যমকে বলেন, সৌদি প্রবাসী এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে কোটি টাকারও বেশি অর্থ হাতিয়ে নেওয়ায় অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় রোমানা ইসলাম স্বর্ণাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, ভুক্তভোগী ওই প্রবাসী মোহাম্মদপুর থানায় রোমানা ইসলাম স্বর্ণার বিরুদ্ধে মামলা করেন।  মামলার অভিযোগে ভুক্তভোগী উল্লেখ করেন, রোমানা ইসলাম স্বর্ণা প্রতারণার মাধ্যমে তাকে বিয়ে করে তার কাছ থেকে বিভিন্ন সময় কোটি টাকারও বেশি হাতিয়ে নিয়েছেন। 

মোহাম্মদপুর থানার ওসি আবদুল লতিফ জানান, ২০১৫ সালে স্বর্ণা অভিনীত একটি সিনেমা মুক্তি পায়। এছাড়া একাধিক বিজ্ঞাপনের মডেলও ছিলেন তিনি। 

২০১৮ সালে সৌদি প্রবাসী কামরুল হাসানের সঙ্গে ফেসবুকে স্বর্ণার পরিচয় হয়। ২০১৯ সালের মার্চে তারা বিয়ে করেন। এরপর কামরুল সৌদি আরব চলে যান। গাড়ি ও ফ্ল্যাট কেনা এবং ব্যবসা করাসহ নানা অজুহাতে কামরুলের কাছ থেকে এক কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন স্বর্ণা। 

সম্প্রতি কামরুল দেশে ফিরলে স্বর্ণা জানায়, সে কামরুলকে অনেক আগেই তালাক দিয়েছেন। এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। এরপর কামরুল মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন।a