ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ ড. বেনজীর আহমেদ বলছেন আপনাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর ভয়ের কোন কারণ নেই। রাষ্ট্র, আইন ও জনগণ আপনাদের পাশে আছে। আপনারা মামলা করুন অবশ্যই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে হেফাজতের আন্দোলনে ক্ষতিগ্রস্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন শেষে প্রেসক্লাবে ক্ষতিগ্রস্ত ও আহত সাংবাদিকের দেখতে গিয়ে মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি। 

আইজিপি বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩২ লাখ লোক বসবাস করে শহরে। তাদের সন্তানদের দিনে শিক্ষা দেওয়ার জন্য ৫৬৪টি মাদ্রাসা করেছে। ওই মাদ্রাসাগুলিতে ১৩ হাজার ছাত্র লেখাপড়া করেছে। তাদের প্রতিদিন এক কোটি টাকা খরচ হয়। এই টাকার যোগান দেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী। কিন্তু এখন আপনাদের চিন্তা করতে হবে আপনাদের এই খেদমতে ভূমি অফিস ও রেকর্ডরুম আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

আইজিপি আরো বলেন, ইসলামী শিক্ষার নামে আমাদের আলেম সমাজ এখন দুই ভাগে বিভক্ত। এক তরুণী রুহানি আধ্যাত্মিক শক্তি সম্পন্ন হলে আর একটি রাজনৈতিক। তাই আমাদেরকে এখন চিহ্নিত করতে হবে রাজনৈতিক আলেম কারা?

এসময় আইজিপি সাথে দেবের মহাপরিচালক সদর আব্দুল আল মামুন , এসবির প্রধান মনিরুল ইসলাম চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন পুলিশের ডিআইজি অপারেশনের হোসেনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।