‘দ্য প্রমিস’ উপন্যাসের জন্য ২০২১ সালের বুকার পুরস্কার পেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার লেখক ড্যামন গ্যালগাট।

এর আগেও ২০০৩ ও ২০১০ সালে দুই বার তার নাম শর্টলিস্টেড হয়েছিল। কিন্তু তখন তার ভাগ্য সুপ্রসন্ন হয়নি। তবে এবার ২০২১ সালের বুকার পেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই লেখক। বুকার পুরস্কারের অর্থমূল্য হলো ৫০ হাজার পাউন্ড। যা বাংলাদেশি অর্থমূল্যে দাঁড়ায় ৫৮ লাখ ৪২ হাজার টাকার কিছু বেশি।

মাত্র ১৭ বছর বয়স থেকে লিখছেন ড্যামন। তিনি মূলত উপন্যাস ও নাটক লেখেন। এর আগে তার আট নম্বর বই ‘আর্কটিক সামার’-এর জন্য সানডে টাইমসের পুরস্কার পেয়েছেন।

ড্যামন বলেছেন, ‘পুরস্কার পেয়ে আমি স্তম্ভিত। এই জায়গায় পৌঁছাতে আমার অনেক সময় লাগল। এখন আমার মনে হয়, আমি এর যোগ্য নই।’ 

তিনি বলেছেন, এই পুরস্কার তিনি আফ্রিকার সব লেখকদের উৎসর্গ করলেন। এই সুন্দর মহাদেশ থেকে যে সব গল্প লেখা হয়েছে, তার সবার তরফে তিনি এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন।

তার সর্বশেষ উপন্যাসে দক্ষিণ আফ্রিকার একটি শ্বেতাঙ্গ কৃষক পরিবারের গল্প বলেছেন ড্যামন। চার দশক ধরে তারা দক্ষিণ আফ্রিকায় আছে। সেই পরিবারের নারীর মৃত্যুকালীন ইচ্ছা বা প্রতিশ্রুতি ছিল, তাদের সম্পত্তি থেকে একটা বাড়ি একটি কৃষ্ণাঙ্গ নারীকে উপহার দিতে হবে। যে নারী সারা জীবন ধরে শ্বেতাঙ্গ পরিবারে কাজ করেছেন। কিন্তু মায়ের শেষ ইচ্ছা পূরণ করা নিয়ে সন্তানদের মধ্যে মতবিরোধ শুরু হলো।

ড্যামন বলেছেন, বর্ণবিদ্বেষী রাষ্ট্রের পতন হয়েছে। কিন্তু মানসিকতায় বর্ণবিদ্বেষ এখনো আছে। এটাই তার উপন্যাসের মূল তত্ত্ব। আইন করে বর্ণবাদ নিষিদ্ধ। কিন্তু অর্থনীতি তাদের সেই জায়গায় দাঁড় করিয়ে রেখেছে, যেখানে তারা আগে ছিল।

সূত্র : ডয়েচে ভেলে