পাকিস্তানি বিমান ধাওয়া করতে গিয়ে নিজ বিমান খুইয়ে দেশটির হাতে ধরা পড়া ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান পদোন্নতি পেয়েছেন। তিনি উইং কমান্ডার থেকে গ্রুপ ক্যাপ্টেনে পদোন্নতি পেয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার হিন্দুস্তান টাইমসসহ ভারতের একাধিক গণমাধ্যমের খবরে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে অভিনন্দনের পদোন্নতির বিষয়ে বলা হয়, ‘কয়েক বছর আগে তার বীরত্বের নিদর্শন দেখেছিলেন আপামর ভারতবাসী। তার জন্য গর্বে বুক ভরে উঠেছিল ভারতবাসীর। পাকিস্তানও আটকে রাখতে পারেননি ভারতীয় বায়ু সেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে। তাকে এবার গ্রুপ ক্যাপ্টেনের পদমর্যাদা দেওয়া হলো। তাকে ইতোমধ্যেই সৌর্য্য চক্র উপাধিতেও ভূষিত করা হয়েছে।’

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, অভিনন্দনকে শিগগিরই নতুন পদমর্যাদায় দায়িত্ব দেওয়া হবে। ভারতীয় বিমানবাহিনীতে গ্রুপ ক্যাপ্টেন পদটি ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্নেল পদমর্যাদার সমকক্ষ।

উল্লেখ্য, গত ২০১৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোরে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বালাকোটে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ তথা বিমান হামলা চালায় ভারত। জবাবে পরদিন ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে হানা দেয় পাকিস্তান বিমান বাহিনী। এ সময় পাকিস্তানি যুদ্ধবিমানকে তাড়া করতে গিয়ে নিজের মিগ-২১ নিয়ে পাকিস্তানের আকাশসীমা ঢুকে পড়েন অভিনন্দন। ‘ডগ ফাইটে’ অভিনন্দনের বিমানটিকে ভূপাতিত করেন পাকিস্তানি পাইলট। আটক করা হয় ভারতীয় পাইলটকে।

ওই ঘটনায় পাকিস্তানের সঙ্গে পুরোদমে যুদ্ধ বেঁধে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয় ভারতের। অবশ্য আটক ভারতীয় পাইলটকে ‘শান্তির মনোভাব’ প্রদর্শনের অংশ হিসেবে ফেরত দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।