দেশে করোনার নতুন ধরণ শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইডিসিআর)।

আজ শনিবার (৮মে) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংস্থাটির প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. এ এস এম আলমগীর।

রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে ভারত ফেরত একজন রোগীর শরীরে করোনার এই নতুন ধরনটি শনাক্ত হয়েছে। তবে এটি ভারতে শনাক্ত হওয়া করোনার ডাবল ভ্যারিয়েন্ট কি না তা নিশ্চিত করেনি আইইডিসিআর।

এছাড়া বিভিন্ন মাধ্যম থেকে জানা গেছে যশোরে কোয়ারেন্টিনে থাকা কয়েকজনের শরীরেও করোনার ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। সেগুলোর ধরন সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত কোন তথ্য জানা যায়নি।

এর আগে গত ৬ ফেব্রুয়ারি করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ধরণের অস্তিত্ব মেলে বাংলাদেশে। ঢাকার বনানীর ৫৮ বছর বয়সী এক নারীর শরীর থেকে সংগ্রহ করা নমুনায় এই স্ট্রেইন পাওয়া যায় বলে নিশ্চিত করে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের (বিসিএসআইআর) জিনোমিক রিসার্চ ল্যাবরেটরির গবেষক দল।

এছাড়া গত ৫ জানুয়ারি যুক্তরাজ্য থেকে বাংলাদেশে আসা ছয়জনের দেহে করোনাভাইরাসের আরেক নতুন ধরন পাওয়া যায় বলে আইইডিসিআর থেকে জানানো হয়। রূপান্তরিত এই নতুন ধরন গত ডিসেম্বরে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হয়।

এদিকে, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১ হাজার ৮৩৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া দেশে নতুন করে আরও এক হাজার ৬৮২ জন আক্রান্ত হয়েছে। দেশে মোট সাত লাখ ৭০ হাজার ৮৪২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে দুই হাজার ১৭৮ জন। এ নিয়ে দেশে মোট সাত লাখ চার হাজার ৩৪১ জন করোনা থেকে সুস্থ হলেন।