রাশিয়ায় তৈরি স্পুতনিক ভি করোনা টিকা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) অনুমোদন পেতে যাচ্ছে বলে দাবি করেছে দেশটি। সংস্থাটির নিবন্ধন পেতে এর মধ্যেই সব বাধা দূর হয়েছে। রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরাশকো জানান, সামান্য কিছু কাজ শেষ হলেই অনুমোদন পাবে এ টিকা। স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার তিনি এমন তথ্য দেন। খবর রয়টার্সের।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে রাশিয়ায় ব্যাপক হারে দেওয়া হচ্ছে স্পুতনিক ভি টিকা। পাশাপাশি বিশ্বের ৭০টির বেশি দেশেও অনুমোদন পেয়েছে টিকাটি। স্পুতনিক ভি নিয়ে এ মুহূর্তে পর্যালোচনা করছে ডব্লিউএইচও ও ইউরোপিয়ান মেডিসিনস এজেন্সি (এএসএ)। সংস্থাগুলোর অনুমোদন পেলে করোনার এ টিকা আরও বেশি দেশে অনুমোদন পাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

স্পুতনিক ভি নিয়ে আলোচনা করতে সুইজারল্যান্ডের জেনেভা শহরে ডব্লিউএইচওর প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুরাশকো। তাঁর বরাত দিয়ে রাশিয়ার বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স জানিয়েছে, স্পুতনিক ভি টিকার নিবন্ধন নিয়ে রাশিয়ার অবস্থান সম্পর্কে ডব্লিউএইচওকে জানানো হয়েছে। সংস্থাটির সব প্রশ্নের জবাব দিয়েছে দেশটি।

মিখাইল মুরাশকো বলেন, ডব্লিউএইচওর অনুমোদন পেতে এ নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠানটির মাত্র কয়েকটি নথিতে স্বাক্ষর বাকি আছে। এ ছাড়া এ–সংশ্লিষ্ট আরও কিছু কাগজ জমা দিতে হবে।

তবে রাশিয়ার পক্ষ থেকে স্পুতনিক ভি টিকার অনুমোদন নিয়ে কথা উঠলেও এ নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ডব্লিউএইচওর কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি বলে উল্লেখ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এর আগে গত জুলাইয়ে স্পুতনিক ভি টিকা নিয়ে পর্যালোচনা চালিয়েছিল ডব্লিউএইচও। সে সময় টিকাটির উৎপাদনসংক্রান্ত কিছু বিষয় নিয়ে আপত্তি জানায় সংস্থাটি। পরে স্পুতনিক ভির উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জানায়, জাতিসংঘের উল্লেখ করা সব সমস্যার সমাধান করেছে তারা।