তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বিএনপির কোনো সাফল্য নেই। ছাত্রদের আন্দোলনের ওপর ভর করে একটি মহল দেশে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে।’

সচিবালয়ে আজ বুধবার নিজ দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। এ সময় তিনি সমসাময়িক বিষয় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার উৎখাতের হুমকি দিচ্ছে। আমরা মাঠে নামলে এ হুমকিদাতারা কোথায় পালাবে? ছাত্রদের গায়ে কালিমা লেপনের চেষ্টা করছে কেউ কেউ। তাদের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।’

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিএনপি তাদের রাজনৈতিক কৌশলের অংশ হিসেবে স্বতন্ত্র নির্বাচন করছে। কিন্তু, তারা কোনো সফলতা পায়নি। বেশির ভাগ ইউপিতেই নৌকার প্রার্থীরা জয়লাভ করেছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে রয়েছে নৌকার বিদ্রোহীরা। এ বিদ্রোহীরাও আমাদের দলেরই। আওয়ামী লীগ একটি বড় রাজনৈতিক দল। এখানে কিছু মান-অভিমান থাকতে পারে।’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য তাঁকে বিদেশে নেওয়ার অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে সর্বোচ্চ সহানুভূতিশীল। তবে, তিনি দণ্ডিত হওয়ায় আইনগতভাবে তাঁর বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নেওয়ার সুযোগ নেই।’

বিএনপির চলমান আন্দোলন সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আট বছর ধরে বিএনপির কাছ থেকে আন্দোলন ও হুমকি শুনে আসছি। বিএনপিপন্থিদের কাছে আমার প্রশ্ন—আওয়ামী লীগ মাঠে নামলে বিএনপির এসব হুমকিদাতারা কোথায় পালাবে?’

রাজধানীর রামপুরায় বাসে আগুন লাগানোর ঘটনাকে পরিকল্পিত উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দুর্ঘটনায় একজন ছাত্র মারা যাওয়ার পর ১২ মিনিটের মধ্যে এটি লাইভ হয়। এর ১৫ মিনিটের মধ্যে ১০/১২টি গাড়ি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। এতেই বোঝা যায়—এগুলো পূর্বপরিকল্পিত ঘটনা।’