গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করা ৩৭ রাষ্ট্রপ্রধানের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে রিপোর্টার্স সানস ফ্রন্টিয়ারস। সেই তালিকায় উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পাশাপাশি নাম রয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও। এই রাষ্ট্রপ্রধানদের ‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণকারী’ বলে আখ্যা দিয়েছে সংস্থাটি।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, মোদি, পুতিন, কিম ছাড়াও তালিকায় নাম রয়েছে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারো, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবানের।

এর আগে চলতি বছরের এপ্রিল মাসে ‘রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্স’ একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল। সেখানে সাংবাদিকদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক দেশগুলোর তালিকায় ভারতের নাম ছিল।

২০১৪ সাল থেকেই রিপোর্টার্স সানস ফ্রন্টিয়ারসের ‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতার হরণকারীর তালিকায় মোদির নাম রয়েছে। মোদির বিষয়ে রিপোর্টার্স সানস ফ্রন্টিয়ারস জানিয়েছে, ২০০১ সালে মোদি গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে এই রাজ্যকে খবর এবং তথ্য নিয়ন্ত্রণ করার ল্যাব হিসেবে ব্যবহার করেন। এরপর ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর তা দেশে প্রয়োগ করেন তিনি।

তারা আরও জানায়, মোদির সবচেয়ে বড় অস্ত্র হলো গণমাধ্যমে নিজের এমন ভাষণ দিয়ে ভরিয়ে দেয়া যাতে জাতীয়তাবাদী মনোভাব ছড়িয়ে যায়। খবর ছড়িয়ে দিয়ে বড় বড় শিল্পপতিদের সঙ্গে তিনি বন্ধুত্ব করেন, যাদের হাতে গণমাধ্যম রয়েছে।