‘নাটক ও সিনেমা’- দুই মাধ্যমেই সমান জনপ্রিয় তিনি। তার অভিনয় বহু আগেই পরীক্ষিত এবং দর্শক মহলে প্রশংসিত। একাধারে তিনি অভিনেত্রী, নির্মাতা, আবৃত্তিকার, উপস্থাপক ও সংসদ সদস্য। তিনি আর কেউ নন, সু অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। নন্দিত এই অভিনেত্রীর আজ জন্মদিন।

সুবর্ণা মুস্তাফা জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে তিনি সংসদ সদস্য হয়েছেন। রাজনৈতিক ব্যস্ততার পাশাপাশি সুযোগ পেলে এখনও অভিনয় নিয়ে মেতে উঠেন এ অভিনেত্রী। সেটা নাটক কিংবা সিনেমা যাই হোক না কেন। তার অভিনীত প্রথম বাণিজ্যিক সিনেমা কাজী জহিরের ‘নতুন বউ’। এ সিনেমাতে তিনি নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন।

প্রথম সিনেমাতে অভিনয় করেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন এ অভিনেত্রী। কিন্তু নাম ভূমিকায় অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব চরিত্রের জন্য তাকে নির্বাচিত করা হয়েছে বলে সেসময় পুরস্কারটি গ্রহণ করেননি সুবর্ণা মুস্তাফা। এরপর আবারও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের মালা তার গলায় ওঠে। বদরুল আনাম সৌদ পরিচালিত ‘গহীন বালুচর’ সিনেমাতে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব চরিত্রাভিনেত্রী হিসেবে তিনি পুরস্কৃত হন।

জন্মদিনের প্রথম প্রহর থেকে বন্ধু, স্বজন ও ভক্ত-অনুরাগীদের শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার ক্যারিয়ারের উজ্জ্বল মুহূর্তগুলো নিয়ে লিখছেন অনেকে।

জানা গেছে, জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ কোনো আয়োজন রাখেননি সুবর্ণা। ঘরোয়া আয়োজনে দিনটি উদযাপন করবেন তিনি।

এ নিয়ে সুবর্ণা মুস্তাফা বলেন, ‘সত্যি বলতে কি একটা অদ্ভুত সময়ের মধ্য দিয়ে আমরা যাচ্ছি। করোনায় প্রতিদিন অনেক মানুষ মারা যাচ্ছে। এমন অবস্থায় কীভাবে মানসিকভাবে ভালো থাকি? ভালো থাকা যায় না। যেখানে মানসিকভাবেই আমি ভালো নেই, সেখানে নিজের জন্মদিন নিয়ে আলাদাভাবে ভাবার কোনো সুযোগও নেই। তাই এবারের জন্মদিন ঘিরে কোনো আয়োজন নেই। এই বিশেষ দিনে সবার কাছে শুধু দোয়া চাই।’

তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা হচ্ছে- ‘ঘুড্ডি’, ‘লাল সবুজের পালা’, ‘নতুন বউ’, ‘নয়নের আলো’, ‘সুরুজ মিঞ্চা’, ‘শঙ্খনীল কারাগার’, ‘রাক্ষস’,‘ কমান্ডার’, ‘অপহরণ’, ‘স্ত্রী’, ‘দূরত্ব’ ইত্যাদি।