আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, একজন ধর্ম ব্যবসায়ীকে কেন্দ্র করে যে ঘটনা ঘটেছে। তা কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে,যুবলীগের নেতার বাড়ি ঘর ভাঙচুর করা হয়েছে, ছাত্রলীগের নেতার বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে,সাধারণ মানুষের উপর অত্যাচার নির্যাতন করা হয়েছে, এই বিষয় পরিষ্কার ভাবে জানিয়ে দিতে চাই- ধর্ম ব্যবসায়ী মামুনুল তার স্ত্রীর নাম দিয়ে এখানে এসেছিল, এবং অনৈতিক কাজে জড়িত ছিলেন বলেই সাধারণ মানুষ তাকে ধরেছে। এই বিষয়টি কেন্দ্র করে তথাকথিত ধর্ম ব্যবসায়ীরা যে ভাঙচুর ও  নির্যাতন করা হয়েছে। এটার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।  

এই ঘটনার সাথে জরিত সকলের নাম ঠিকানার সংগ্রহ করার জন্য আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীদের আহবান জানিয়ে তিনি আরও বলেন,  যারা আওয়ামী লীগের অফিসে হামলা করেছে,  আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বাড়িঘরে হামলা করেছে,  মানুষের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করেছে। হামলার সাথে যুক্তদের পরিচয় সংগ্রহ করুন,  বাড়ি ঠিকানা সংগ্রহ করুন, কে কি ব্যবসা সাথে যুক্ত সেগুলো সংগ্রহ করুন, আমরা চাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ শান্তিপূর্ণ পরিবেশ উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক।  কিন্তু ধর্মের নাম করে অধর্মের কাজ করা,  ভাঙচুর করা বরদাস্ত করা হবে না।  এই ঘটনার সাথে জরিত প্রত্যাককেই  আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।  এবং যারা ধর্মের না অধর্মের কাজ করবে,  তাদের হাত থেকে ধর্মকে রক্ষা করব।  ধর্মের নাম করে যারাই ভাঙচুর করেছে,  এদের ছাড় দেয়া হবে না।  

হামরা শিকার হয়ে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে,  তারা প্রত্যাককে সুনির্দিষ্ট ভাবে মামলা করুন। আমাদের উপর যে আঘার করা হয়েছে,  এই আঘাতের প্রতিঘাত করা হবে।  

সারা বাংলাদেশে এই ধর্মের নাম দিয়ে, বিএনপি, জামায়াত এবং হেফাজতে নাম যারা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করছে, এখন থেকে আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীরা সরকারের পাশে থেকে এই সকল অপশক্তিকে কঠোর ভাবে দমন করা হবে। আশা করি আমাদের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হবেন।  

আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনা কালীন এই দুরযোগের সময়ে স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে এবং মাস্ক পরিধান করে পুরো জাতিকে করোনার সুরক্ষা দিতে হবে। এবং আগামী দিনে সকল অপশক্তিকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে। 

আওয়ামী লীগের অফিস হামলা  মানে প্রতিটি  নেতাকর্মীদের বাড়িঘরে হামলা করা,  এদের কাউকেই ছাড় দেয়া যাবে না।